1. postmaster@deliveryforfun.com : deltonsun :
  2. gertrude@gameconsole.site : hiltonsoutherlan :
  3. carrington@miki8.xyz : imayfe2724819 :
  4. admin@zahidit.com : Publisher :
  5. nihal.sultanul@gmail.com : Jamuna Protidin : নিউজ এডিটর
দুই শিক্ষার্থীকে পাশবিক নির্যাতন, শিক্ষক আটক » Jamuna Protidin
সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬:১৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
Cialis -Top Ten Questions And Answers ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় রাসেল বিল্লাল গ্রেফতার এপার বাংলার কথায় ওপার বাংলার ‘ভালোবাসি চলো আবারও’ গলাচিপায় সক্রিয় কালা জ্বর রোগ শনাক্তকরণ সভা গলাচিপা হাসপাতালের শিশু ও প্রসূতি ওয়ার্ড ঝুকিপূর্ণ গণসংযোগে ব্যস্ত শ্যামল সিদ্দিক,জনসমর্থনে নৌকা এগিয়ে রাজশাহী জেলা পরিষদ কার্যালয়ে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির কার্যনির্বাহী কমিটির প্রথম সভা পুলিশের অভিযানে নওগাঁর নিয়ামতপুরে অবৈধ ফেন্সিডিল উদ্ধার’ ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নওগাঁর মান্দায় মাছধরাকে কেন্দ্র করে ছোট ভাইয়ের লাঠির আঘাতে বড় ভাই নিহত,আটক-২ মান্দায় প্রতিপক্ষের আঘাতে বৃদ্ধের মৃত্যু, আটক ২

দুই শিক্ষার্থীকে পাশবিক নির্যাতন, শিক্ষক আটক

যমুনা প্রতিদিন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময়: মঙ্গলবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৫৭ বার পঠিত

সাভারের আশুলিয়ায় মাদ্রাসার দুই শিশু শিক্ষার্থীকে পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগে এক শিক্ষককে আটক করেছে পুলিশ।

শিক্ষার্থীদের নির্যাতনের ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পর সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রাতে শ্রীপুরের মধুপুরে জাবালে নূর কওমী মাদরাসা থেকে তাকে আটক করা হয়।

এর আগে গত ১১ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) সন্ধ্যায় ওই কওমী মাদরাসায় হেফজ বিভাগের শিক্ষার্থী রাকিবুল ইসলাম ও মাহফুজুর রহমানকে পাশবিক নির্যাতন করেন শিক্ষক হাফেজ মোহাম্মদ ইব্রাহিম। পরে নির্যাতনের সেই ফুটেজ ফেসবুকে ভাইরাল হলে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

নির্যাতিত শিক্ষার্থী রাকিবুল ইসলাম রাশেদের (১৪) বাড়ি টাঙ্গাইলে ও অপর শিক্ষার্থী মাহফুজুর রহমান ফুয়াদের (১০) বাড়ি ঝালকাঠি সদরে।

নির্যাতনের শিকার শিশু শিক্ষার্থী মাহফুজুর রহমান জানায়, তার সহপাঠী রাকিবুল নির্যাতন সইতে না পেরে পালিয়ে যায়। পরে তাকে খুঁজে নিয়ে এসে মাদরাসার ভেতর হাত-পা বেঁধে নির্যাতন চালায় শিক্ষক ইব্রাহিম। এসময় রাকিবুলকে পালাতে সহায়তার অভিযোগে তাকেও নির্মমভাবে বেত্রাঘাত করে জখম করেন ওই শিক্ষক।

ধামসোনা ইউপি মেম্বার মোনতাজ উদ্দিন ও এলাকাবাসী জানায়, গত দুই বছর পূর্বে মধুপুর এলাকায় ছয় তলা ভবনের চতুর্থ তলায় ১২ জন শিক্ষার্থী নিয়ে আবাসিক শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করে কওমী মাদরাসাটি। তবে ইব্রাহিম ও ওবায়দুল্লাহ নামে দুইজন হাফেজ দিয়েই চলতো প্রতিষ্ঠানটি। এরপর গত ১১ সেপ্টেম্বর মাদরাসার দুই শিক্ষার্থীকে হাত-পা বেঁধে নির্মম নির্যাতন চালায় মাদরাসার শিক্ষক ইব্রাহিম।

পরে সোমবার শিশুদের শরীরে পাশবিক নির্যাতনের চিহ্ন দেখে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয় স্থানীয়রা।

এরপরই এলাকাবাসী একত্রিত হয়ে সোমবার রাতে অভিযুক্ত মাদরাসার শিক্ষক ইব্রাহিমকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এসময় অপর শিক্ষক ওবায়দুল্লাহকেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যায় পুলিশ।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মহির উদ্দিন জানান, শিশু শিক্ষার্থীকে নির্যাতনের অভিযোগের সত্যতা মিলেছে। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ও অভিভাবকরা মাদরাসায় শিশু নির্যাতনের প্রতিবাদে ক্ষোভ প্রকাশ করে এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। পুলিশের কাছে আটক হাফেজ মাওলানা ইব্রাহিম তার ভুল স্বীকার করেছেন।

সুত্রঃ সময় নিউজ

সংবাদটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর...

© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | যমুনাপ্রতিদিন.কম

Theme Customized BY LatestNews