যমুনা প্রতিদিন
ঢাকাবৃহস্পতিবার , ৬ মে ২০২১
  1. English
  2. অর্থ ও বাণিজ্য
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. খেলাধুলা
  6. গণমাধ্যম
  7. চাকরি
  8. ছবিঘর
  9. জাতীয়
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশজুড়ে
  13. ধর্ম
  14. নারী ও শিশু
  15. প্রবাসের কথা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

পত্নীতলায় প্রতিপক্ষের রডের আঘাতে এক যুবকের মৃত্যু

মাসুদ রানা,পত্নীতলা (নওগাঁ)
মে ৬, ২০২১ ৪:৪৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নওগাঁর পত্নীতলায় বাঁশ কাটা নিয়ে বিবাদে প্রতিপক্ষের রডের আঘাতে রাজু( ২১) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যু রাজু ডাস নগর গ্রামের আফজাল হোসেনের ছেলে।

পত্নীতলা থানায় প্রদত্ত এজাহার সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় ডাসনগর গ্রামের জানা মন্ডলের পুত্র আফজাল হোসেন (৪৫) বাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়া বিদ্যুৎ এর তারের উপর পড়ে যাওয়া বাঁশ কাটতে গেলে ডাসনগর দিঘী পাড়া গ্রামের মো. আব্দুস সালামের পুত্র ছয়ফুল হোসেন, আলম হোসেনের পুত্র মুকুল হোসেন, কালাম হোসেনের পুত্র সানোয়ার হোসেন ও মামুন হোসেন ,মৃত ছহির উদ্দিনের পুত্র আমিনুল ইসলাম, কালাম হোসেন, আলম ও আব্দুস সালাম পূর্ব শত্রুতার জের ধরে লাঠি শোটা, হাসুয়া, লোহার রড নিয়ে হামলা করে।

এ সময় ছয়ফুল হোসেন হাসুয়া দিয়ে আফজাল হোসেনের মাথায় আঘাত করলে সে মারাত্বক জখম হয়। পিতাকে বাঁচানোর জন্য রাজু এগিয়ে আসলে মুকুল হোসেন তার হাতে থাকা লোহার রড দিয়ে রাজুর মাথায় আঘাত করলে সে গুরুতর জখম হয়। স্বামী ও সন্তানকে রক্ষা করার জন্য বেনজু আরা বেগম এগিয়ে গেলে বিবাদীরা তাকেও বেদম মারপিট করে আহত করে এবং শ্লীলতাহানী করে।

আঘাতের কারণে আফজাল ও রাজু মাটিতে লুটিয়ে পড়লে বিবাদীরা তাদের এলাপাতাড়ি মারধর করে স্থান ত্যাগ করে।
পরে পরিবারের সদস্য ও গ্রামবাসীরা গুরুতর আহত অবস্থায় পিতা-পুত্রকে উদ্ধার করে পত্নীতলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

আহতদের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসকের পরামর্শে তাদের রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার রাতেই রাজু মারা যায়। এদিকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন পিতা আফজালের অবস্থাও আশংকাজনক বলে জানা গেছে।

বাঁশ কাটাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় নিহত রাজুর মামা মো. এনামুল ইসলাম (আজগর) পতœীতলা থানায় ৮জনকে আসামী করে পেনাল কোডের ১৪৩/৪৪৭/৩২০/৩২৬/৩০৭/৩৫৪/৫০৬ ধারায় মামলা দাখিল করেছেন। এজাহারের প্রেক্ষিতে থানা পুলিশ বুধবার রাতেই এজাহারভুক্ত আসামীমুকুল হোসেন, মামুন হোসেনসহ গোলাপী বেগম ও মোসা. গকুল বেগমকে আটক করেছে।

এ বিষয়ে পত্নীতলা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সামসুল আলম শাহ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আটককৃতদের বৃহস্পতিবার জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকী আসামীদের গ্রেফতার করার প্রচেষ্টা চলছে।

প্রিয় পাঠক আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর সরাসরি জানাতে ই-মেইল করুন নিম্নের ঠিকানায়  jamunaprotidin@gmail.com