যমুনা প্রতিদিন
ঢাকাশনিবার , ৮ মে ২০২১
  1. English
  2. অর্থ ও বাণিজ্য
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. খেলাধুলা
  6. গণমাধ্যম
  7. চাকরি
  8. ছবিঘর
  9. জাতীয়
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশজুড়ে
  13. ধর্ম
  14. নারী ও শিশু
  15. প্রবাসের কথা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

করোনাযোদ্ধা হয়ে অদম্য ছুটে চলা ওসি ইকবাল বাহার চৌধুরী

মাসুদ রানা,নিজস্ব প্রতিবেদক
মে ৮, ২০২১ ৮:৫৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

বিশ্বজুড়ে করোনা মহামারী থেকে সংক্রমন এখন অতিমারীতে রুপ নিয়েছে, চলছে ভয়াবহতা। পার্শবতর্ী দেশ ভারতেও করোনা ভাইরাসে মহামারী আকার ধারন করছে।

দেশজুড়ে চলছে এর সংক্রোমন, কোথাও মনখুলে চলার কোন সুযোগ নেই। বর্তমান পরিস্থিতিতে মাঠে-ঘাটে অভিযান পরিচালনা করতে চরম ঝুকিও রয়েছে প্রতিটি মুহুর্তে। মৃত্যুর ছায়া যেন চারপাশে ঘুরে বেড়াচ্ছে। অদৃশ্য মরণঘাতক ভাইরাস শরীরে নিয়ে ঘরে ফিরি কিনা কে জানে। ইতোমধ্যে মাঠ প্রশাসনের বেশ কয়েকজন করোনায় আক্রান্ত।

এ পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে চির দিনের বিদায় নিয়ে চলে গেছে সহপার্ঠী অনেকেই। কতজন, না যেন হারিয়েছে তার প্রিয়জনকে। আবার অনেকে হারিয়েছে তার কলিজার টুকরো প্রিয় সন্তান, আবার কেউ হারিয়েছে স্বামী আর বাবা-মা ও আদরের ভাই-বোনকে।

তবুও করোনাকে ভয় না পেয়ে, মানবতার হাত বাড়িয়ে দিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ, দায়িত্ব ও দেশ প্রেম থেকেই প্রায় প্রতিদিনই অভিযানে যাচ্ছে, মাঠে থাকছে এ প্রিয় মানুষটি।

আমিতো কারো একজন সন্তান, কারো হৃদয়ের স্পন্দন প্রিয় মানুষ আবার কারো বাবা বা ভাই। আমি সরকারের যে দায়ীত্ব পালন করছি, করোনাকালীন এই মহা-বিপদের সময় অন্য কারো কথা না শুনলেও মানুষ আমার কথা শুনবে বলে আমার বিশ্বাস। আমি যদি একটি মানুষকেও আমার কথার দ্বারা সচেতন হয়, মরন ঘাতক ভাইরাস থেকে তার জীবনটা বেঁচে যায় এটাই আমার জীবনের সার্থকতা। জীবনের ঝুঁিক নিয়ে প্রতিদিনই অভিযান, মানুষকে সচেতন করা, হৃদয়ের হাত বাড়িয়ে দিয়ে খাবার বিতরণ বা মানুষের একদম কাছা-কাছি যাচ্ছেন কেন, এমন প্রশ্নের জবাবে মোংলা থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, শুধু ঝুঁকি না মৃত্যুর ঝুঁকিও রয়েছে এই সময়ে। তবুও তো মানুষকে সচেতন করতে হবে, বুঝাতে হবে। আমরা ছঁাড়া কে সচেতন করবে সাধারণ মানুষকে। সবার মধ্যে সচেতনতার বার্তা পৌঁছে না দিলেতো সংক্রমণ আরো বেড়ে যাবে। মাঠে আছি, থাকব। আমি যদি মানুষের জন্য কিছু করতে পারি তাহলে সৃষ্টিকর্তা নিজেই আমার জন্যে কিছু করবে, এটাই আমার বিশ্বাস।

দেশের প্রধানমন্ত্রীর প্রানপন যুদ্ধ করছে দেশের মানুষের জন্য, তাই প্রজাতন্ত্রের একজন কর্মচারী হয়ে জেলা পুলিশ সুপার কে এম আরিফুল ইসলাম মহদয়ের নির্দেশনা মোতাবেক কাজ করে চলেছেন তিনি।।

মোংলা উপজেলার পৌর শহরের বাজার এবং প্রত্যন্ত অঞ্চলের বাজার ব্যবস্থাপনা মনিটরিং, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা, মানুষকে সচেতন করায় নিয়মিত ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন পুলিশ প্রশাসনের এ কর্মকর্তা। কখনো উপজেলা প্রশাসনের সাথে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা, আবার কখনো দৃস্কৃতিকারীদের দমনে টহল দলের নেতৃত্বে রয়েছেন প্রতিনিয়ত তিনি।

মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী আরো বলেন, করোন মহামারীতেও সব সময়ই রাস্তায় রয়েছে পুলিশ, গরীব ও মধ্যবিত্তদের কখোনও প্রকাশ্যে আবার কখনও গোপনে খাবার দিচ্ছেন পুলিশ, সারা দেশে এ দুর্দিনের সময় বেতনের একটি অংশ সরকারের হাতে তুলে দিলেন পুলিশ, হৃদয়ের হাত বাড়িয়ে দিয়ে কর্মহীন মানুষদের ত্রান দিচ্ছেন পুলিশ। মাহে রমজানে ছিন্নমুল মানুষদের নিজ হাতে ইফতার বিতারন করছেন, ঘরমুখো মানুষদের গান গেয়ে বাসায় থাকতে উৎসাহ দিলো পুলিশ, করোনায় আক্রান্তদের হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছেন পুলিশ, ডাক্তারদের কর্মস্থলে আনা-নেয়া করছেন পুলিশ, আবার করেনায় মৃত্য ব্যাক্তির কবর খোড়া, জানাজা পড়ানো ও দাফন দিচ্ছেন পুলিশ।

একটি মানুষ কয়েকটি চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে দেশ সেবা করতে হচ্ছে। কারো কাছে কঠোর হতে হয় আবার কখনও হৃদয়ের স্পন্দন দিয়ে ভালবেসে মানুষের কাছে গিয়ে সেবা দিতে হচ্ছে আমাদের। তাই যতোদিন মোংলায় কর্মরত থাকবো, সহায়তা পেয়েছি সকলের কাছ থেকে। সব সময়ই মানুষের সেবা করে যেতে চাই, থাকতে চাই এ অঞ্চলের মানুষের মনের মনিকুঠায়।

প্রিয় পাঠক আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর সরাসরি জানাতে ই-মেইল করুন নিম্নের ঠিকানায়  jamunaprotidin@gmail.com