যমুনা প্রতিদিন
ঢাকাশুক্রবার , ৫ আগস্ট ২০২২
  1. English
  2. অর্থ ও বাণিজ্য
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. খেলাধুলা
  6. গণমাধ্যম
  7. চাকরি
  8. ছবিঘর
  9. জাতীয়
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশজুড়ে
  13. ধর্ম
  14. নারী ও শিশু
  15. প্রবাসের কথা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

খুলনায় রত্নাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ২ লাখ টাকা ডেমরা’র রিনা দিয়েছে -র‍্যাব জিজ্ঞাসাবাদে রাকিব

যমুনা প্রতিদিন ডেস্কঃ
আগস্ট ৫, ২০২২ ৫:২২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সাভারের পোশাক শ্রমিক রত্না কে খুলনায় হত্যার উদ্দেশ্যে আজ ঢাকা থেকে আসে রাকিব (২২)।খুলনা থেকে পালিয়ে যাওয়ার মুহুর্তে র‍্যাব তাকে আটক করে।

জিজ্ঞাসাবাদে এই ভাড়াটে খুনী জানায়,ঢাকার ডেমরা থেকে নারী চোরাচালান ও সাভারের দেহ ব্যাবসা’র অন্যতম প্রধান রিনা তাকে ২ লাখ টাকা দিয়েছে হত্যা করার উদ্দেশ্যে।

খুলনা চারজন বন্ধু সহ সকালে প্রেস কনফারেন্স শুরুর আগে ই সে নারীকে চাপাতি দিয়ে ভোরে আঘাত করে বলে জানায়।আটকের পর র‍্যাবের জিজ্ঞাসাবাদ রাকিব নিজেকে সাভারের দেহ ব্যাবসা সিন্ডিকেট সদস্য বলে স্বীকারোক্তি দিয়েছে।

সাংবাদিকরা এই সময় জানতে চায়,সাভার কোয়ার্টার ভেতরে কিভাবে চলতো দেহ ব্যাবসা?

জবাবে আটক রাকিব জানায়,দুপুর থেকে রাত বারোটা অব্দি চলতো ঝুমকোলতা ভবনের চতুর্থ তলায় এই দেহ ব্যাবসা। বাসায় যাতায়াত ছিলো কবিরের বেশকিছু বন্ধুরও।পাশাপাশি সকল খদ্দের কবিরের দুই কন্যা কেয়া ও পিয়া কে সরবরাহ করতেন স্ত্রী আমেনা ও শালীকা রিনা।

রত্না কে হত্যার উদ্দেশ্য সম্পর্কে জানতে চাইলে আটক রাকিব জানায়,

কবিরের দ্বিতীয় স্ত্রী হওয়ার দাবী করায় তাকে হত্যার পরিকল্পনা করে বর্তমান প্রথম স্ত্রী আমেনা ও তার বোন রিনা।অপারেশন সফল করতে ই কিলিং মিশনে তাকে জরুরী পাঠানো হয় গতকাল রাতের বাসে খুলনা। পরবর্তীতে কবিরের বড় মেয়ে কেয়া’র দ্বিতীয় স্বামীকে ও হত্যার পরিকল্পনা ছিলো পরিবারটির বলে জানায় “রাকিব’।

১৭ জুলাই (সোমবার) বিপিএটিসি ভেতরে লাঠি নিয়ে আঘাত সহ গলা টিপে ধরার ভিডিও দেখিয়ে উত্তেজিত সাংবাদিকরা সেদিনের ঘটনা জানতে চাইলে রাকিব বলেন, কেয়া’র দ্বিতীয় স্বামী নারী চোরাচালান ও দেহ ব্যাবসা ঘটনা জানার পর ই তাকে হত্যার পরিকল্পনা করে কবির এবং রিনা।তার জন্য ই ভিডিও তে আসা স্পষ্ট উঠে এসেছে কবির গলা টিপে ধরে এবং লাঠি আনে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে।যেটার ভিডিও নিজেও ফেসবুকে এবং বিভিন্ন চ্যানেলে দেখে কিছুদিনের জন্য গা ঢাকা দিয়েছিলেন।কিন্তু বারবার কেয়া’র দ্বিতীয় স্বামী সেদিন ভোর থেকে সাভার র‍্যাব অফিসে কল দেওয়ায় কবিরের মুল পরিকল্পনা টি সেদিন ব্যার্থ হয়।আর বাচার জন্য ই সেদিন কেয়া’র দ্বিতীয় স্বামী অন্য ভবনে লুকিয়ে র‍্যাব কে কল দিচ্ছিলেন বলেও এই তরুনকে আটকের পর র‍্যাব থেকে জানানো হয়।

কেন সই আদায় করা হয়েছে কেয়া’র দ্বিতীয় স্বামী থেকে র‍্যাবের এমন প্রশ্নে আটক রাকিব বলে,

তিনি এই বিষয়টি জানেন না।কিন্তু পরবর্তীতে সিদ্দিক মাধ্যমে শুধু সই নেওয়ায় রিনা’র সঙ্গে ঝগড়া হয় কবিরের।আর সেদিনের সই টি পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য কিন্তু ভুক্তভোগী সে তরুনের সত্যিকার সই নয় বলেও র‍্যাব এসময় জানায়।

এই সময় র‍্যাবের হাতে আটক “রাকিব” নিজেকে ঢাকা ডেমরায় বসবাস করা রিনা’র দেহ ব্যাবসা ও মাদক- নারী চোরাচালান অপরাধের প্রধান সহায়তাকারী হিসেবে দাবী করেন।

সাংবাদিকরা জানতে চান,নারী চোরাচালান কিভাবে করতো এই চক্র জবাবে আটক রাকিব বলেন,এদের মধ্যে প্রথম ধাপ কাজ করতো কেয়া ও পিয়া।তারা বিভিন্ন ফেক ফেসবুক আইডি থেকে নারী ও তরুনীদের সংগ্রহ করতেন। এরপর দ্বিতীয় ধাপে অংশ নিতেন রিনা,কবির, আমেনা ও সে নিজে।

দেহ ব্যাবসা না করতে চাইলে কি কি অত্যাচার করা হতো ঢাকা ডেমরার বাসায়?

সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে র‍্যাবের হাতে আটক রাকিব জানায়,লাঠি দিয়ে ডেমরার বাসায় ভেতরের রুমে তরুনী ও কিশোরীদের মারধর করতো সবচেয়ে বেশী কবির পাশাপাশি কেয়া,পিয়া,আমেনার সঙ্গে নিজেও অত্যাচার করতো বলে র‍্যাব কে জানায় রাকিব৷

গনমাধ্যমে হাজিরের পর রাকিব নিজ বক্তব্যে আরও বলেন,কবিরের স্ত্রী আমেনা ও ছোট মেয়ে “পিয়া “সবচেয়ে বেশী যাতায়াত করতেন ঢাকা ডেমরায় রিনার বাসায়।রিনা’র বাসায় ভেতরের রুমে চলে এই সকল মাদক-দেহ ব্যাবসা।কবিরের বড় মেয়ে “কেয়া ” কে ঢাকা ডেমরার বাসায় আনা হতো বড় মাপের টাকাওয়ালা খদ্দের পেলে বলে ও জানায় আটক এই তরুন।

স্বপরিবারে কেন এর-ই মধ্যে রিনা’র বাসায় গিয়েছিলো কবির?

র‍্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে এসময় রাকিব জানায়, কেয়া’র প্রথম স্বামী থেকে ব্লাকমেইল করে আদায় করে নেওয়া জমির দলিল সংক্রান্ত কাজে গিয়েছিলেন তারা পরবর্তীতে তিনি রিনা থেকে জানতে পেরেছেন।

এই সময় আটক রাকিব র‍্যাব কে আরও জানায়,সাভার ইপিজেড এলাকায় হোটেল বৈশাখী তে কবির স্ত্রী আমেনা দুই কন্যা কেয়া ও পিয়া নিয়মিত দেহ ব্যাবসা করে আসছেন কবির সহ বৈশাখী হোটেলের মালিকের সহায়তায়।

প্রিয় পাঠক আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর সরাসরি জানাতে ই-মেইল করুন নিম্নের ঠিকানায়  jamunaprotidin@gmail.com