যমুনা প্রতিদিন
ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১১ আগস্ট ২০২২
  1. English
  2. অর্থ ও বাণিজ্য
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. খেলাধুলা
  6. গণমাধ্যম
  7. চাকরি
  8. ছবিঘর
  9. জাতীয়
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশজুড়ে
  13. ধর্ম
  14. নারী ও শিশু
  15. প্রবাসের কথা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

কোম্পানীগঞ্জে অটোরিকশা চালক বলরাম হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত দু’জনকে গ্রেপ্তার

আবু সাঈদ শাকিল,নোয়াখালীঃ
আগস্ট ১১, ২০২২ ১১:৩০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

কোম্পানীগঞ্জের অটোরিকশা চালক বলরাম (১৫) হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত তোতা মিয়া ও শ্যামল চন্দ্র নামে দু’জনকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা ডিবি পুলিশ।এসময় অটোরিক্সার ৩ টি চাকা উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত তোতা মিয়া নিহত বলরামের অটোরিক্সাটি হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত শ্যামল চন্দ্র দাসের কাছ থেকে ২৭হাজার টাকায় ক্রয় করেছিল।

বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) বিকেল ৪টা থেকে রাত সাড়ে ৬টা পর্যন্ত নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তার জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়।

আদালত সূত্রে জানা গেছে,২নং আমলি আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এমদাদ আসামি শ্যামল চন্দ্র দাসের জবানবন্দি রেকর্ড করেন।জবানবন্দি রেকর্ডের পর আদালতের নির্দেশে আসামিকে নোয়াখালী জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আসামি শ্যামল চন্দ্র দাস পার্শ্ববর্তী সেনবাগ উপজেলার ৯নং নবীপুর ইউনিয়নের নারায়ন চন্দ্র দাসের ছেলে ও আবদুল খালেক ওরফে তোতা মিয়া কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের ৫নম্বর ওয়ার্ডের মাহবুবুল হক মুন্সি বাড়ির মৃত মোস্তফা মিয়ার ছেলে।

ডিবি পুলিশ সূত্রে জানা যায়,আসামিরা চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারি রিকশাচালক বলরাম মজুমদারকে বসুরহাট কলেজ রোড থেকে যাত্রী হিসেবে তার অটোরিকশায় উঠে উপজেলার ৪নং চরকাঁকড়া ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়ার্ডের মহিষের ডগি এলাকায় নিয়ে যায়। সেখানে পৌঁছে ইউনুছ চৌকিদারের বাড়ির পূর্ব পাশে কৃষি জমিতে নিয়ে বলরামকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে আসামিরা।

নিহত বলরাম (১৫) উপজেলার চর হাজারী ইউনিয়নের ৪নম্বর ওয়ার্ডের সনাতন মহাজন বাড়ির লনি গোপালের ছেলে।সে পেশায় একজন অটোরিকশা চালক ছিলেন। চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারি দুপুর পৌনে ২টার দিকে উপজেলার চরকাঁকড়া ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়ার্ডের চৌকিদার বাড়ি সংলগ্ন মহিষের ডগি থেকে রিকশাচালক বলরামের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নোয়াখালী পুলিশ সুপার (এসপি) শহীদুল ইসলাম বলেন,বলরাম মজুমদারের সঙ্গে ঘটনার ৪-৫ দিন পূর্বে অটোরিকশার ১০ টাকা ভাড়া নিয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত পলাতক ২ জন আসামির ঝগড়া হয়।সেই ঝগড়াকে কেন্দ্র করে আসামিরা তাকে শ্বার্সরোধ করে হত্যা করে।

পরবর্তীতে আসামি আব্দুল খালেক ওরফে তোতা মিয়ার কাছে ২৭ হাজার-টাকায় অটোরিকশা বিক্রয় করা হয়। রিকশা বিক্রয়ের ৫ হাজার টাকা অপর আসামি শ্যামল চন্দ্র দাসকে ভাগ দেওয়া হয়।

প্রিয় পাঠক আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর সরাসরি জানাতে ই-মেইল করুন নিম্নের ঠিকানায়  jamunaprotidin@gmail.com