যমুনা প্রতিদিন
ঢাকামঙ্গলবার , ১৮ জানুয়ারি ২০২২
  1. English
  2. অর্থ ও বাণিজ্য
  3. আইন-আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. খেলাধুলা
  6. গণমাধ্যম
  7. চাকরি
  8. ছবিঘর
  9. জাতীয়
  10. জেলার খবর
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দেশজুড়ে
  13. ধর্ম
  14. নারী ও শিশু
  15. প্রবাসের কথা

চিত্রনায়িকা শিমুর বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার

যমুনা প্রতিদিন ডেস্ক
জানুয়ারি ১৮, ২০২২ ১:৪৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

রাজধানীর কেরানিগঞ্জ থেকে বাংলা চলচ্চিত্র অভিনেত্রী রাইমা ইসলাম ওরফে শিমুর(৩৫) বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি)দুপুরে কেরানীগঞ্জের হযরতপুর ব্রিজের কাছ থেকে তার মরদেহটি উদ্ধার করে কেরানীগঞ্জ থানার পুলিশ।

বর্তমানে তার মরদেহ রয়েছে রাজধানীর মিটফোর্ড হাসপাতালে।সোমবার রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ অভিনেত্রী শিমুর ভাই খোকন খবরটি নিশ্চিত করেন।

শিমুর ভাই শহিদুল ইসলাম খোকন বলেন, সর্বশেষ দুইদিন আগে কথা হয়েছিল,তার কোনো শত্রু নেই।তবে এফডিসিতে ১০ দিন আগে ভোটার তালিকা থেকে বাদ দেওয়া নিয়ে চিত্রনায়ক জায়েদ খানের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়েছিল।

এ বিষয়ে নায়িকা সাদিয়া মির্জা বলেন, কেরানীগঞ্জ থানার ওসি জানিয়েছেন শিমু আপার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে এখনো জানা যায়নি।শিমু আপা রবিবার সকাল ১০টা থেকে সোমবার পর্যন্ত নিখোঁজ ছিলেন।

শিমু ছিলেন রাজধানীর গ্রিনরোডের বাসিন্দা।কলাবাগান থানা পুলিশ জানায়,রবিবার (১৬ জানুয়ারি) অভিনেত্রী শিমুর অভিভাবকরা নিখোঁজ সংক্রান্তে একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।পরে জিডি অজ্ঞাত নামা কয়েকজনকে আসামি করে একটি মামলা করা হয়।পুলিশ তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় সোমবার কেরানীগঞ্জ থেকে বস্তাবন্দি একটি লাশ উদ্ধার করে।

শিমুর অভিভাবকদের জানানোর পর তারা লাশটিকে শনাক্ত করে।লাশ ময়না তদন্তের জন্য মিডফোর্ড হাসাপাতালে আছে।

শিমুকে হত্যা করা হয়েছে কি না জানতে চাইলে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কাজী রমজানুল হক জানান,যেহেতু মরদেহটি বস্তাবন্দি ছিল এবং গলায় দাগ ছিল,তাই প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি এটি হত্যাকাণ্ড।তবে এ বিষয়ে আমরা তদন্ত করছি।তবে এ বিষয়ে এখনো কোনো অভিযোগ আমাদের কাছে আসেনি।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি আবদুস সালাম বলেন,সোমবার দুপুরে স্থানীয়দের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী হযরতপুর সেতুর পাশ থেকে দুটি বস্তা উদ্ধার করা হয়। সেগুলো খুলে এক নারীর খণ্ডিত দুটি টুকরা পাওয়া যায়। পরিচয় শনাক্ত না হওয়ায় লাশটি স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়।রাতে স্বজনরা মর্গে গিয়ে নিশ্চিত করেন যে লাশটি অভিনেত্রী শিমুর।

ওসি আরও বলেন,শিমুকে অন্য কোথাও ধারালো অস্ত্র দিয়ে নৃশংসভাবে খুন করা হয়েছে।এরপর লাশটি টুকরা করে দুটি বস্তায় ভরে গুম করার জন্য সেতুর পাশে ফেলে রাখা হতে পারে।

এদিকে,মিটফোর্ড হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ জানান,কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশ সন্ধ্যায় অজ্ঞাত এক নারীর মরদেহ সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে মর্গে পাঠিয়েছে।মঙ্গলবার তার ময়নাতদন্ত করা হবে।

রহস্যজনক মৃত্যুর শিকার কে এই চিত্রনায়িকা শিমু?

জানা যায়,শিমু চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সদস্য ছিলেন।আসন্ন নির্বাচনে ১৮৪ জনের সঙ্গে তার সদস্য পদ স্থগিত করা হয়।এ নিয়ে স্থগিত হওয়া অন্য সদস্যদের সঙ্গে তিনি বর্তমান কমিটির বিরুদ্ধে আন্দোলনে সরব ছিলেন।

১৯৯৮ সালে কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘বর্তমান’ সিনেমা দিয়ে রুপালি পর্দায় তার অভিষেক হয়।একে একে অভিনয় করেছেন ২৩ টি সিনেমায় ও ৫০ টিরও বেশি নাটকে।অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজক হিসেবেও দর্শকরা তাকে পর্দায় পেয়েছে।দেখতে দেখতে রাইমা ইসলাম শিমু চলচ্চিত্র ও নাটকের ক্যারিয়ার দুই দশকেরও বেশি সময় পার করেছেন।

শিমু বাংলাদেশের অনেক গুণী পরিচালকের সাথে কাজ করেছেন।মরহুম চাষী নজরুল ইসলাম,পরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টু,এ জে রানা,শরিফুদ্দিন খান দ্বীপু, এনায়েত করিম,শবনম পারভীন।

এছাড়া অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক শাকিব খান,রিয়াজ, অমিত হাসান,বাপ্পারাজ,জাহিদ হাসান ও মোশারফ করিমসহ অনেক গুণী অভিনেতাদের সাথে অভিনয় করেছেন।

এছাড়াও সাম্প্রতিক সময়ে ফ্যামিলি ক্রাইসিস নামে একটি ধারাবাহিক নাটকে কাজ করেছেন।

প্রিয় পাঠক আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর সরাসরি জানাতে ই-মেইল করুন নিম্নের ঠিকানায়  jamunaprotidin@gmail.com